Current Bangladesh Time
বুধবার অক্টোবর ২৮, ২০২০ ৬:১০ পূর্বাহ্ণ
Latest News
প্রচ্ছদ  » স্লাইডার নিউজ » বরিশালে সরকারিভাবে ধান ক্রয়, ৩৬৯ মেট্রিকটনের বেশি সংকট 
Monday March 2, 2020 , 2:25 pm
Print this E-mail this

প্রথমবার আমন ধান সংগ্রহ করা হচ্ছে বিধায় প্রথমদিকে কৃষকদের বুঝতে কিছুটা অসুবিধা হয়েছে

বরিশালে সরকারিভাবে ধান ক্রয়, ৩৬৯ মেট্রিকটনের বেশি সংকট


শাকিল মাহমুদ : বরিশাল জেলায় প্রান্তিক কৃষকদের কাছ থেকে সরাসরি সরকারিভাবে ২৬ টাকা কেজি দরে আমন ধান কেনা হয়েছে। এসকল আমন ধান ক্রয় বরিশাল জেলায় এবারই প্রথম। আর এই প্রথমবারেই অর্জন করা সম্ভব হয়নি লক্ষ্যমাত্রা। ফলে আরও পাঁচদিনের সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে আমন ধান ক্রয়ের। এমনই তথ্য জানা গেছে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকের কার্যালয় সূত্রে। এদিকে কৃষকদের দিক বিবেচনা করে এবার প্রথম আমন ধান সংগ্রহ করছে সরকার। সে জন্য বরিশাল জেলার ১০ উপজেলায় ২০ ফেব্রুয়ারি থেকে ৭ হাজার ৯২০ মেট্রিক টন আমন ধান সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে কাজ শুরু করেন খাদ্য বিভাগের কর্মকর্তারা। তবে শুরু থেকেই আমন ধান খাদ্যগুদামে দেওয়া নিয়ে চাষিদের মধ্যে তেমন একটা আগ্রহ দেখা যায়নি। আবার এমনও হয়েছে আমন ধানের পরিবর্তে অনেক কৃষকই বোরো ধান খাদ্যগুদামে সরবরাহের চেষ্টা করেন। অপরদিকে সরকারিভাবে ধান কেনার প্রথম দফার নির্ধারিত সময় শেষ হওয়ার আগেই খোলা বাজারে ধানের দাম কিছুটা বেড়ে যায়, ফলে অনেক চাষি সেখানেও তাদের উৎপাদিত ধান বিক্রি করে দিয়েছেন। এসব তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে গৌরনদী উপজেলা ওসিএলএসডি সুভাষ চন্দ্র পাল জানান, আমন ধান সংগ্রহের শুরু থেকেই তালিকাভুক্ত কৃষকদের বিধি মোতাবেক গুদামে ধান নিয়ে আসতে বলা হয়। কিন্তু প্রথমবার বরিশালে আমন ধান সংগ্রহ হওয়ায় কিছুটা সমস্যা হয়েছে। অনেক কৃষক আমনের পরিবর্তে বোরো নিয়ে এসেছেন খাদ্যগুদামে, যা রাখা সম্ভব হয়নি। এছাড়াও যারা পর্যাপ্ত আর্দ্রতাসহ সরকারি নিয়মের বাইরে ধান দেওয়ার চেষ্টা করেছেন তাদের বিধি মেনে নিয়ে আসার জন্য বলা হয়েছে। তিনি বলেন, অনেক উপজেলায় আবাদ কম হয়েছে। ফলে সেখান থেকে লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী ধান কেনা সম্ভব হয়নি। আবার অনেক উপজেলায় লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি ধানও পাওয়া গেছে। এগুলো এখন ঠিক করে নেওয়া হচ্ছে। এদিকে বরিশাল জেলায় মোট ৭ হাজার ৯২০ মেট্রিক টন আমন ধান সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল। ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত জেলার ১০ উপজেলা থেকে ৭ হাজার ৫৫০ দশমিক ৩৬০ মেট্রিকটন ধান সংগ্রহ করা হয়। এর মধ্যে বরিশাল সদর উপজেলায় ধান ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১০০ মেট্রিকটন, সেখান থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে ১০০ মেট্রিকটন। বরিশাল সদর উপজেলায় ধান সংগ্রহে কোন অবশিষ্ট নেই। জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলায় ধান ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২ হাজার ১ শত ২৭ দশমিক ৭২ মেট্রিকটন সেখান থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে ১ হাজার ৮ শত ২৯ দশমিক ৯৬ মেট্রিকটন। বাকেরগঞ্জ উপজেলায় ধান সংগ্রহ অবশিষ্ট আছে ২ শত ৯৬ দশমিক ৭৬ মেট্রিকটন। বাবুগঞ্জ উপজেলায় ধান ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৮ শত ৯১ দশমিক ২৮০ মেট্রিকটন, সেখান থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে ৮ শত ৯১ দশমিক ২৮০ মেট্রিকটন। বাবুগঞ্জ উপজেলায় ধান সংগ্রহে কোন অবশিষ্ট নেই। উজিরপুর উপজেলায় ধান ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৭ শত ৪৬ মেট্রিকটন, সেখান থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে ৭ শত ৪৬ মেট্রিকটন। উজিরপুর উপজেলায় ধান সংগ্রহে কোন অবশিষ্ট নেই। জেলার গৌরনদী উপজেলায় ধান ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৮ শত ৭৪ মেট্রিকটন, সেখান থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে ৮ শত ৭৪ মেট্রিকটন। গৌরনদী উপজেলায় ধান সংগ্রহ অবশিষ্ট আছে ৭১ মেট্রিকটন। আগৈলঝাড়া উপজেলায় ধান ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১ শত ৬১ মেট্রিকটন, সেখান থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে ১ শত ৬১ মেট্রিকটন। আগৈলঝাড়া উপজেলায় ধান সংগ্রহে কোন অবশিষ্ট নেই। মুলাদী উপজেলায় ধান ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৬ শত মেট্রিকটন, সেখান থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে ৬ শত মেট্রিকটন। মুলাদী উপজেলায় ধান সংগ্রহে কোন অবশিষ্ট নেই। জেলার হিজলা উপজেলায় ধান ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৮ শত মেট্রিকটন, সেখান থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে ৭ শত ৯৯ দশমিক ১২০ মেট্রিকটন। হিজলা উপজেলায় ধান সংগ্রহ অবশিষ্ট আছে দশমিক ৮৮০ মেট্রিকটন। মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলায় ধান ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১ হাজার মেট্রিকটন, সেখান থেকে সংগ্রহও করা হয়েছে ১ হাজার মেট্রিকটন। মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলায় ধান সংগ্রহে কোন অবশিষ্ট নেই। বানারীপাড়া উপজেলায় ধান ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৬শত ২০ মেট্রিকটন, সেখান থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে ৬শত ২০ মেট্রিকটন। বানারীপাড়া উপজেলায় ধান সংগ্রহে কোন অবশিষ্ট নেই। এদিকে খাদ্য বিভাগের কর্মকর্তারা বলছেন, বরিশালে মূলত আমন থেকে বোরোর আবাদ বেশি হয়ে থাকে। আবার আমন ধান যেটুকু চাষ করা হয়, তার বেশিরভাগই কৃষক নিজেদের খাওয়ার জন্য রেখে দেন। ফলে আমন বিক্রি এ অঞ্চলে তেমন একটা হয় না। এছাড়া, এ বছর আমন ধানে চিটা দেখা দেওয়ায় উৎপাদনও কিছুটা কম হয়েছে বরিশাল অঞ্চলে। এদিকে জেলার বরিশাল সদর, বাবুগঞ্জ, উজিরপুর আগৈলঝাড়া, মুলাদী, মেহেন্দিগঞ্জ ও বানারীপাড়া উপজেলায় আমন ধান ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন হলেও বাকেরগঞ্জ, গৌরনদী, হিজলা উপজেলায় ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন হয়নি। জেলায় এখনো মোট ৩ শত ৬৯ দশমিক ৬৪০ মেট্রিকটনের বেশি ধানের সংকট রয়েছে। এদিকে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা রিয়াজুর রহমান রাজু বলেন, লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে যেটুকু সংকট রয়েছে তা দু-একদিনের মধ্যেই পূরণ হয়ে যাবে। প্রথমবার আমন ধান সংগ্রহ করা হচ্ছে বিধায় প্রথমদিকে কৃষকদের বুঝতে কিছুটা অসুবিধা হয়েছে।

সূত্র : বরিশাল ক্রাইম নিউজ

Archives
Image
চঞ্চল-শাওনের ভাইরাল ‘যুবতী রাধে’ গান নিয়ে বিতর্ক
Image
৯৯৯-এ কল করে পুলিশের সহযোগিতায় স্বজনদের খুঁজে পেল স্মৃতি হারানো তানিয়া
Image
দর্শক নন্দিনী মাহিয়া মাহির জন্মদিন আজ
Image
অভিমান করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীর আত্মহত্যা
Image
বহুল আলোচিত বরগুনার রিফাত হত্যা মামলা : অপ্রাপ্তবয়স্ক ১৪ আসামির রায় আজ