Current Bangladesh Time
শুক্রবার জুন ৫, ২০২০ ৯:৪৭ অপরাহ্ণ
Latest News
প্রচ্ছদ  » স্লাইডার নিউজ » বরিশালের গৌরনদীতে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় গর্ভের সন্তানসহ এক নারীর মৃত্যু! 
Friday May 22, 2020 , 1:00 pm
Print this E-mail this

রোগীর স্বজনরা একাধিক নার্সের মাধ্যমে জানতে পেরে পুরো ক্লিনিক অবরুদ্ধ করে পুলিশকে জানায়

বরিশালের গৌরনদীতে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় গর্ভের সন্তানসহ এক নারীর মৃত্যু!


মুক্তখবর ডেস্ক রিপোর্ট : বরিশালে ভুল চিকিৎসার বলি হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন গর্ভবতী নারী ও তার পেটে থাকা সন্তান। বৃহস্পতিবার (২১ মে) দুপুরে জেলার গৌরনদী উপজেলার আনোয়ারা ক্লিনিক এন্ড ডায়াগণস্টিক সেন্টারে এ ঘটনা ঘটে। ওই ক্লিনিকের অপরেশন থিয়েটারে সিজারকালে যান আফরোজা আক্তার মুন্নী ও তাঁর পেটে থাকা সন্তান। মৃত ওই গৃহবধূ পার্শ্ববতী উজিরপুর উপজেলার শোলক ইউনিয়নের দত্তেশ্বর গ্রামের মো: কুদ্দুস তালুকদারের স্ত্রী। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করেছে তাঁর পরিবার। মৃতের স্বজনরা জানান, বৃহস্পতিবার সকালে প্রসব বেদনা উঠলে ওই গৃহবধূকে গৌরনদী উপজেলার আনোয়ারা ক্লিনিক এন্ড ডায়াগণস্টিক সেন্টারে ভর্তি করা হয়। এ সময় ওই ক্লিনিকের মালিক হেদায়েত উল্লাহ নিজেকে একজন এমবিবিএস ডাক্তার দাবি করে সিজার করানোর কথা বলেন। রোগীর স্বজনেরা তাতে রাজি হলে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: সাঈদ মো: আমরুল্লাহকে সার্জন হিসেবে ডেকে আনেন ক্লিনিকের মালিক হেদায়েত উল্লাহকে। পরে দুপুরে ওই গৃহবধূকে সিজারের জন্য অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে ইনজেকশন পুশ করেন। কিছুক্ষণের মধ্যেই গর্ভের সন্তানসহ মারা যান ওই গৃহবধূ। তাৎক্ষণিক বিষয়টিকে ধামাচাপা দিতে রোগীর অবস্থা খারাপ বলে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেলে পাঠানোর জন্য এ্যাম্বুলেন্স নিয়ে আসে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি রোগীর স্বজনরা একাধিক নার্সের মাধ্যমে জানতে পেরে পুরো ক্লিনিক অবরুদ্ধ করে পুলিশকে জানায়। তবে, ঘটনাস্থলে পুলিশ আসার আগেই পালিয়ে যায় ক্লিনিকের মালিক হেদায়েত উল্লাহ ও সার্জন ডা: সাঈদ মো: আমরুল্লাহ। পরে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। এ ঘটনায় মৃত গৃহবধূর স্বামী মো: কুদ্দুস তালুকদার বাদী হয়ে গৌরনদী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন বলে জানা গেছে। স্থানীয়রা জানান, ক্লিনিকের মালিক হেদায়েত উল্লাহ পার্শ্ববর্তী বাবুগঞ্জ উপজেলার আগরপুর ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রের ফার্মাসিস্ট হিসেবে কর্মরত ছিলেন। এর আগেও এক রোগীর অপারেশন করাকে কেন্দ্র করে পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন তিনি। মৃত গৃহবধূর স্বজনরা জানান, রোগী মারা যাওয়ার পর বিষয়টিকে ধামাচাপা দিতে রোগীর অবস্থা খারাপ বলে রোগীকে বরিশাল শেবাচিমে পাঠানোর নাটক করে হেদায়েত উল্লাহ। আমরা আমাদের পরিচিত নার্সের মাধ্যমে মৃত্যুর সংবাদ জানতে পেরে ক্লিনিক আবরুদ্ধ করে পুলিকে জানাই। হত্যার দায়ে তার সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানান তারা।

Archives
Image
বরিশালে মাদ্রাসার এক শিক্ষককে মানুষিক ও শারীরিক নির্যাতন, উদ্বিগ্ন মানবাধিকার!
Image
ঝালকাঠি আ’লীগের সম্পাদক পনির’র মাতার মৃত্যুতে তালুকদার মোঃ ইউনুস’র শোক
Image
ফের বাড়ছে সাধারণ ছুটি ও কড়া লকডাউন
Image
র‌্যাব-৮’র অভিযানে গোপালগঞ্জ হতে মানব পাচার চক্রের সাথে সংশ্লিষ্ট ২ জন গ্রেফতার
Image
করোনা : আমার করুন অভিজ্ঞতা – কাজী মিরাজ